করোনাভাইরাস পরীক্ষার কিট বানিয়ে সন্তান জন্ম দিলেন ভারতীয় বিজ্ঞানী

১০০ কোটিরও বেশি লোকসংখ্যার দেশে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করার পর্যাপ্ত কিট নেই বলে ব্যাপক সমালোচনা চলছিলো ভারতজুড়ে। এই সমালোচনার মধ্যেই শতভাগ কার্যকরী কিট তৈরিতে সাফল্য পেলো দেশটি। আর এই সাফল্য এনে দিয়েছেন মহারাষ্ট্রে অবস্থিত পুনের মাইল্যাব ডিসকোভারির গবেষণা ও উন্নয়ন প্রধান মিনাল দাখেভে ভোঁসলে। এই নারী বিজ্ঞানী একজন ভাইরোলজিস্ট, অর্থাৎ ভাইরাস নিয়েই তার পড়াশোনা এবং কাজ।

তিনি জানান, এই কিট তৈরিতে সাধারণত ৩ থেকে ৪ মাস সময় লেগে যায়। কিন্তু তারা এটি রেকর্ড দ্রুততম সময়- মাত্র দেড় মাসে করেছেন। গত ফেব্রুয়ারিতে তার কাজ শুরু করেন। এই তাড়ার পেছনে মিনালের একটি ব্যক্তিগত কারণও ছিলো। তিনি অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। এই মাসেই ছিলো তার সন্তান জন্ম দেওয়ার তারিখ। তিনি সন্তান জন্ম দেওয়ার আগেই কাজটি শেষ করতে চাইছিলেন। তার ভাগ্য সুপ্রসন্ন যে মাত্র দেড় মাসেই তারা সাফল্য পেয়ে গেছেন।

ভারতীয় গবেষণা প্রতিষ্ঠান মাইল্যাব জানিয়েছে, তাদের উদ্ভাবিত এই কিট দিয়ে ১০০টি নমুনা পরীক্ষা সম্ভব হবে। ইতিমধ্যে তারা কিট বানিয়ে বাজারজাত করার অনুমতিও পেয়েছে। গত বৃহস্পতিবার থেকে তাদের এই কিট বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। একেকটি কিটের দাম পড়বে ১ হাজার ২০০ ভারতীয় রুপি, যা বিদেশ থেকে আমদানি করতে ৪ হাজার ৫০০ রুপি খরচ হয়। তারা প্রথম চালানে ১৫০টি কিট পাঠিয়েছে পুনে, মুম্বাই, গোয়া, বেঙ্গালুরু ও দিল্লিতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *