নদীতে আটকে গেছেন সিয়াম-পরীমনিরা

প্রযোজক সমিতির নির্দেশনা অনুযায়ী শ্যুটিং বন্ধ করে সুন্দরবন থেকে নদী পথে ঢাকা ফিরছিলেন সিয়াম-পরীমনিরা। কিন্তু তথ্য মন্ত্রণালয় এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া ঢাকায় ফিরতে বাধা দিয়েছে কোস্টগার্ড। এখনো নদীতেই থেমে আছে তাদের নৌযান।

চলচ্চিত্রটিতে প্রধান দুটি চরিত্রে অভিনয় করছেন সিয়াম আহমেদ ও পরীমনি। ছবিতে আরও অভিনয় করছেন আশীষ খন্দকার, শহীদুল আলম সাচ্চু, আজাদ আবুল কালাম, কচি খন্দকারসহ প্রায় ২০টি শিশু। মুশফিকুর রহমান পরিচালিত ছবিটির চিত্রনাট্য করেছেন জাকারিয়া সৌখিন।

গত বৃহস্পতিবার শ্যুটিং বন্ধ করে ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ ছবির শ্যুটিং ইউনিট মোংলা থেকে রওনা দেয়। বেশ কিছু দূর আসাতেই তাদের আটকে দেয় পানখালীতে কর্তব্যরত কোস্টগার্ড। এত যন্ত্র ও মানুষ নিয়ে ঢাকায় ঢোকার জন্য পথে পথে বারবার তাদের অনুমতিপত্র দেখাতে হবে বলে জানায় কোস্টগার্ডের কর্মকর্তারা। তখন তারা তথ্য মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করেন।

প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান বঙ্গ বিডির পরিচালক মুশফিকুর রহমান জানান, রোববার মন্ত্রণালয় খুললে আবেদন করা হবে। তারপর অনুমতি দিলে তারা ঢাকায় রওনা হবেন। নৌযানের মালিকও নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় থেকে অনুমতি নেবেন।

নৌযানের নিরাপত্তা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আশাকরি অনুমতি পেতে এক রাত এক দিন লাগবে। নিরাপত্তা নিয়ে তেমন অসুবিধা নেই।’

নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও শ্যুটিং বন্ধ না করার কারণ জানতে চাইলে প্রযোজক বলেন, ‘সুন্দরবনের ভেতরের দিকে শ্যুটিং চলার কারনে আমরা যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ছিলাম এবং এই নিষেধাজ্ঞার কথা আমরা জানতে পারিনি। বন থেকে বের হওয়ার পর এ সম্পর্কে জানতে পারি। তারপর প্রযোজক সমিতি ও পরিচালক সমিতির নেতাদের সাথে কথা বলেছি। এ ছাড়া আমাদের ইউনিটে প্রযোজক সমিতির নেতা শহীদুল আলম সাচ্চুও আছেন। সবার সাথে আলাপ করেই শ্যুটিং বন্ধ করে ঢাকায় ফিরছি।’

এদিকে অভিনয়শিল্পীদের সময় কাটছে লঞ্চে গল্পগুজব করে। মুহম্মদ জাফর ইকবালের উপন্যাস ‘রাতুলের রাত রাতুলের দিন’ উপর নির্মিত হচ্ছে এই চলচ্চিত্র। এর বেশিরভাগ শ্যুটিংই নৌযানে। তাই এই ছবির পরিচালক ফিরতি পথেও মাঝেমধ্যে কিছু কিছু শিল্পীর ইনচার্ট শট নিয়ে নিচ্ছেন।

শ্যুাটিংয়ে থাকা ২০টি শিশু নিয়ে উদ্বিগ্নতা প্রকাশ করে প্রযোজক সমিতি থেকে হুঁশিয়ারিও দেয়া হয়। ২২ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত সিনেমার সব ধরনের শ্যুটিং, ডাবিং ও সম্পাদনার কাজ বন্ধ রেখেছে চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *