হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে প্রবিধানমালা দ্রুত চূড়ান্ত করার দাবি

বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস উপলক্ষে স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণে সংশ্লিষ্ট প্রবিধানমালা চূড়ান্ত এবং বাস্তবায়নের দাবি জানিয়েছে অ্যাডভোকেসি ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান প্রজ্ঞা (প্রগতির জন্য জ্ঞান)।

হৃদরোগ থেকে অকাল মৃত্যুর ঝুঁকি হ্রাস করার উদ্দেশে ২০২৩ সালের মধ্যে বিশ্বের খাদ্য সরবরাহ থেকে শিল্প উৎপাদিত ট্রান্সফ্যাট নির্মূল করার আহ্বান জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। সেই লক্ষ্যকে সামনে রেখে ট্রান্সফ্যাটমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে একটি খসড়া প্রবিধানমালা জনসাধারণের মতামতের জন্য নিজস্ব ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ। আগামী ৫ মে পর্যন্ত এই প্রবিধানমালার ওপর মতামত প্রদানের সুযোগ রয়েছে।

বুধবার (৭ এপ্রিল) বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটির এ বছরের প্রতিপাদ্য ছিল, ‘সকলের জন্য সুন্দর ও স্বাস্থ্যকর বিশ্ব গড়ি’। ১৯৫০ সাল থেকে প্রতি বছর বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্য সচেতনতা তৈরির লক্ষ্যে ৭ এপ্রিল বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস পালন করে আসছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও সদস্য রাষ্ট্রগুলো। বুধবার (৭ এপ্রিল) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানায় প্রজ্ঞা।

প্রজ্ঞা জানায়, ট্রান্সফ্যাটি এসিড (টিএফএ) বা ট্রান্সফ্যাট স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর খাদ্য উপাদান। মাত্রাতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাট গ্রহণ উচ্চহারে হৃদরোগ, হৃদরোগজনিত মৃত্যু, স্মৃতিভ্রংশ (ডিমেনশিয়া) এবং স্বল্প স্মৃতিহানি (কগনিটিভ ইমপেয়ারমেন্ট) জাতীয় রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বৃদ্ধি করে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ২০২০ সালে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, ট্রান্সফ্যাটঘটিত হৃদরোগে মৃত্যুর সর্বাধিক ঝুঁকিপূর্ণ ১৫টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম।

প্রজ্ঞার নির্বাহী পরিচালক এবিএম জুবায়ের বলেন, সুন্দর ও স্বাস্থ্যকর জীবন সবার অধিকার। ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের উদ্যোগকে আমরা সাধুবাদ জানাই। দ্রুত সময়ের মধ্যে এই প্রবিধানমালা চূড়ান্ত এবং বাস্তবায়ন করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *